পরকীয়া

- নাজমুল আহসান

পরকীয়া শব্দটা শুনলেই আমার মাথায় এর প্রথম যে প্রতিচ্ছবি আসে, সেটা হচ্ছে- ‘গু খাওয়া’!

মাফ করবেন, সত্যিকারার্থেই পরকীয়ার সাথে তুলনা করার মতো এরচেয়ে ভালো আর কিছু খুঁজে পাইনি!

আপনি ঠিক কোনটাকে পরকীয়া বলেন জানি না। আমার কাছে পরকীয়ার সংজ্ঞাটা খানিকটা বিস্তৃত।

পাশের বাড়ির ভাবির সাথে আপনার যে ইটিশপিটিস, সেটা যেমন পরকীয়া; বন্ধুর প্রেমিকার সাথে মাঝরাতে লুতুপুতু ফোনালাপও তেমনি পরকীয়া!

অন্যের সাথে বিয়ে হয়ে যাওয়া আপনার প্রেমিকা, যাকে আপনি ‘মুরোদ’-এর অভাবে বিয়ে করতে পারেননি; তারসাথে যোগাযোগ রেখেই চলেছেন! জ্বি, এটার কথাও বলছি।

পরিচিত কোনো মেয়ে; প্রতিবেশিনী, ভার্সিটির জুনিয়র কেউ অথবা অফিসের সুন্দরী কলিগ। আপনি জানেন তিনি অন্য কারও বউ কিংবা প্রেমিকা। কাজের আলাপের অজুহাতে আপনি তারসাথে ঘেঁষাঘেঁষি করেন। আমি এটাকেও পরকীয়া বলি।

দোহাই লাগে, এই ** খাওয়া থেকে সরে আসুন। আপনার একটা পরিবার আছে, প্রেমিকা বা বউ আছে, ছোটছোট বাচ্চাকাচ্চা আছে। একই অবস্থা আপনার বিপরীত পক্ষেরও। শুধু আপনার ‘লুইচ্চামি’র জন্যে কতগুলো মানুষ অশান্তির সাগরে পড়ে যাবে চিন্তা করুন! আপনার ছেলেমেয়ে একদিন জানবে তাদের বাবার দুশ্চরিত্রের কথা; কী অমানুষিক কষ্ট নিয়ে ওরা বড় হবে!

প্রেমই বলুন আর বিয়েই বলুন, দুইটাতেই যোগ্যতা লাগে। চোরের মতো পরকীয়ার গুহায় ঢুকে না থেকে বাইরে আসুন। আপনি পরকীয়ার মতো একটা জঘন্য বিষয়ের সাথে জড়িত, এই কথাটা আপনি কখনোই গর্বভরে কাউকে বলতে পারবেন না। যে কথাটা গর্বের নয়, সেই কথাটা লজ্জার।

(মোট পড়েছেন 457 জন, আজ 1 জন)
শর্টলিংকঃ

৪টি মন্তব্য

  1. মোঃআয়নাল হক মোঃআয়নাল হক বলেছেন:

    ঠিক কথাই বলেছেন প্রেমই বলুন আর বিয়েই বলুন, দুইটাতেই
    যোগ্যতা লাগে। চোরের মতো
    পরকীয়ার গুহায় ঢুকে না থেকে
    বাইরে আসুন। আপনি পরকীয়ার মতো
    একটা জঘন্য বিষয়ের সাথে জড়িত, এই
    কথাটা আপনি কখনোই গর্বভরে
    কাউকে বলতে পারবেন না

মন্তব্য করুন